জয়ার ‘বিসর্জন’ সেরা বাংলা ছবি (blogkori.tk)

জয়ার ‘বিসর্জন’ সেরা বাংলা ছবি


ফিচার প্রতিবেদক | ২০:২৩:০০ মিনিট, এপ্রিল ০৮, ২০১৭

২০০৪ থেকে ২০১৭ সাল। ‘ব্যাচেলর’ থেকে ‘দেবী’। সিনেমায় অভিনয়দক্ষতা দিয়ে অসংখ্য সম্মাননা অর্জন। গতকালও নিজের দক্ষতা প্রমাণের স্বীকৃতি পেলেন আরেকবার। বলা হচ্ছে, অভিনেত্রী জয়া আহসানের কথা। যিনি তার চলচ্চিত্র ক্যারিয়ারের সর্বশেষ মুক্তিপ্রাপ্ত ছবি ‘বিসর্জন’-এর জন্য পেলেন দারুণ এক অনুভূতি। অনুভূতি বলার কারণটা অবশ্য পরিষ্কার করতেই হবে। কারণ জয়া আহসান এই ছবির বদৌলতে সরাসরি কোনো পুরস্কার পাননি, তবে তার অভিনীত বিসর্জন ছবি যেহেতু বাংলা বিভাগে সেরা ছবি হিসেবে গতকাল ভারতের জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারটি পেয়েছে, সেহেতু এই অর্জনের পেছনে তার অভিনয় গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রেখেছে বৈকি।

জয়া অবশ্য বিসর্জনের এ অর্জন নিয়ে একটি কথাতেই নিজের প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করেছেন। তিনি বলেছেন, ‘বিসর্জন জিতে নিল শ্রেষ্ঠ বাংলা ছবির জাতীয় পুরস্কার। আমরা খুশি। আমরা আনন্দিত। তোমাদের সঙ্গে ভাগ করে নিলাম।’

নিজের দেশ বাংলাদেশে যেমন জয়া তার অভিনয়দ্যুতি ছড়িয়েছেন, তেমনি ওপার বাংলা অর্থাত্ কলকাতাতেও জয় করে চলেছেন দর্শকখ্যাতি। বিসর্জনের আগে কলকাতায় অরিন্দম শীলের ‘আবর্ত’ (২০১৩), ‘ঈগলের চোখ (২০১৬), ইন্দ্রনীল রায় চৌধুরীর ‘একটি বাঙালি ভূতের গপ্পো’ (২০১৫), সৃজিত মুখার্জির ‘রাজকাহিনী’ (২০১৫) ছবিতে অভিনয় করেছেন জয়া।

তার অভিনীত এসব ছবির প্রতিটিই আলোচিত ও দর্শকপ্রিয়তা পেয়েছে বিশেষ করে কলকাতায়। এর মধ্যে আবর্ত ছবির জন্য ফিল্মফেয়ার অ্যাওয়ার্ড (ইস্ট), রাজকাহিনীর জন্য টেলিসিনে অ্যাওয়ার্ড পেয়েছেন তিনি। একটু খেয়াল করলে দেখা যায়, কলকাতার ছবিতে ২০১৩, ২০১৫ ও ২০১৭ সালে অর্থাত্ দুই বছর পর পর চলচ্চিত্রের জন্য জয়া কোনো না কোনো সম্মাননায় ভূষিত হয়েছেন।

দুদিন আগেও জয়া জানতেন না, তার অভিনীত বিসর্জন ছবি অর্জন করবে ভারতের জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার। এখন তিনি এ সম্পর্কে পুরোটাই অবগত। তবে এই দুইয়ের কোনো প্রভাব পড়েনি কলকাতায় তার চলতি সফরে। ছবিটি যাতে সব শ্রেণীর দর্শকের কাছে পৌঁছাতে পারে, সেজন্য তিনি, ছবিটির নির্মাতা কৌশিক গাঙ্গুলী, তার সহ-অভিনেতা আবীর চট্টোপাধ্যায় আর সংশ্লিষ্ট সবাই প্রচার-প্রচারণা চালিয়ে যাচ্ছেন। এর রেশ বাংলাদেশে এসেও পড়েছে। জয়া আহসান ছাড়াও বিশেষ করে ছবির ট্রেইলারের একটি অংশে যখন বাংলাদেশের রাজনীতি নিয়ে কিছু সংলাপ শোনা যায়, তখন সেটি বাংলাদেশের চলচ্চিত্রপ্রেমীদের চোখে একটু বেশিই দৃষ্টি আকর্ষণ করবে, এটাইস্বস্‌বাভাবিক।

বিসর্জন প্রসঙ্গে কথা বলতে গিয়ে জয়া জানিয়েছেন, এ ছবির চরিত্র নাকি তার জীবনের অন্যতম সেরা চরিত্র। তবে জয়া যা-ই বলুন না কেন, আরো অসংখ্য ‘অন্যতম সেরা চরিত্র’ তার ক্যারিয়ারে যোগ হবে, এমন প্রত্যাশা কিন্তু তার সব বাংলাদেশী দর্শকদের।

www.blogkori.tk

Blogkori

Phasellus facilisis convallis metus, ut imperdiet augue auctor nec. Duis at velit id augue lobortis porta. Sed varius, enim accumsan aliquam tincidunt, tortor urna vulputate quam, eget finibus urna est in augue.

Post a Comment