বার্সার ‘ক্ল্যাসিকো’ জয়|| blogkori

বার্সার ‘ক্ল্যাসিকো’ জয়


চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী রিয়াল মাদ্রিদকে হারিয়ে নতুন মৌসুম শুরুর প্রস্তুতি সেরে নিল বার্সেলোনা। গতকাল বাংলাদেশ সময় সকাল ৬টায় যুক্তরাষ্ট্রের মিয়ামিতে ইন্টারন্যাশনাল চ্যাম্পিয়ন্স কাপে নিজেদের শেষ ম্যাচে রিয়ালের মুখোমুখি হয় কাতালান ক্লাবটি। রোমাঞ্চকর ৯০ মিনিটের এ লড়াইয়ে রিয়ালকে ৩-২ গোলে হারিয়ে চ্যাম্পিয়ন্স কাপে যুক্তরাষ্ট্র পর্বের শিরোপা জিতে নেয় বার্সা। প্রাক-মৌসুমে এ প্রীতি টুর্নামেন্টের চীন পর্বে শিরোপা জিতেছে বরুশিয়া ডর্টমুন্ড ও সিঙ্গাপুর পর্বের চ্যাম্পিয়ন ইন্টার মিলান।

মৌসুম শুরুর আগে প্রস্তুতি হিসেবে চ্যাম্পিয়ন্স কাপে অংশ নিয়ে থাকে ইউরোপের বড় দলগুলো। চার বছর আগে শুরু হওয়া এ প্রদর্শনী টুর্নামেন্ট একসঙ্গে মাঠে গড়িয়েছে তিনটি দেশে। প্রতিটি আয়োজক দেশে আলাদা করে পয়েন্টের ভিত্তিতে নির্ধারিত হয়ে থাকে চ্যাম্পিয়ন দল। চীনে যেমন বরুশিয়া ডর্টমুন্ড এক ম্যাচ খেলেই চ্যাম্পিয়ন! ইন্টার মিলান তাদের সমান ৩ পয়েন্ট পেলেও গোল ব্যবধানে এগিয়ে জার্মান ক্লাবটি। তবে সিঙ্গাপুরে দুই ম্যাচে ৬ পয়েন্ট তুলে নিয়ে এ অঞ্চলের শিরোপা জিতেছে ইন্টারই। যুক্তরাষ্ট্র পর্বে অংশ নিয়েছিল সবচেয়ে বেশি সংখ্যক (৮ দল) দল। এর মধ্যে বার্সা তিন ম্যাচের সবগুলো জিতে যুক্তরাষ্ট্র পর্বে চ্যাম্পিয়ন। গতকাল বাংলাদেশ সময় রাত ২টায় রোমা-জুভেন্টাস ম্যাচ দিয়ে পর্দা নেমেছে এবারের চ্যাম্পিয়ন্স কাপের।

প্রাক-মৌসুম ‘এল ক্ল্যাসিকো’য় চিরপ্রতিদ্বন্দ্বীদের মুখোমুখি হওয়ার আগে দুই ম্যাচ হেরেছিল রিয়াল। ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের কাছে পেনাল্টি শুটআউটে হারের পর ম্যানচেস্টার সিটির কাছে ১-৪ গোলে বিধ্বস্ত হয় জিনেদিন জিদানের দল। অন্যদিকে ম্যানইউ ও জুভেন্টাসকে হারিয়ে রিয়ালের মুখোমুখি হয়েছিল আর্নেস্তো ভ্যালভের্দের দল। হোক না প্রদশর্নী টুর্নামেন্ট, কিন্তু ম্যাচটা ‘এল ক্ল্যাসিকো’ বলেই শক্তিশালী স্কোয়াড গঠন করেছিলেন দুই দলের কোচ। ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো না থাকলেও গ্যারেথ বেল-করিম বেনজেমার সঙ্গে আক্রমণভাগে মার্কো আসেনসিওকে খেলিয়েছেন জিদান। তাদের পেছনে ছিলেন লুকা মডরিচ, মার্সেলো, সের্জিও র্যামোস ও রাফায়েল ভারানের মতো পরীক্ষিতরা। আক্রমণভাগে ‘এমএসএন’ জুটিকে রেখে মাঝমাঠে ইনিয়েস্তা-র্যাকিতিচ এবং রক্ষণভাগে জেরার্ড পিকে-জর্ডি আলবার মতো অভিজ্ঞদের খেলান বার্সা কোচ ভ্যালভের্দে।

স্পেনের বাইরে দুই চিরপ্রতিদ্বন্দ্বীর প্রথম মুখোমুখি ১৯৮২ সালে ভেনিজুয়েলায়। যুক্তরাষ্ট্র এ তালিকায় দ্বিতীয় হলেও দেশটির মাটিতে এটাই প্রথম ‘এল ক্ল্যাসিকো’— মিয়ামির হার্ড রক স্টেডিয়ামে যার চাক্ষুষ সাক্ষী হয়ে থাকতে প্রায় ৬৬ হাজার ফুটবলমোদীদের টিকিটপ্রতি খরচ হয়েছে ২০০ থেকে ১ হাজার ডলার। তবে ম্যাচের ৩ মিনিটের মধ্যেই দর্শকদের পয়সা উসুল করে দেন লিওনেল মেসি। মডরিচকে কাটিয়ে তার নেয়া শট ভারানের পায়ে লেগে আশ্রয় নেয় রিয়ালের জালে। এর ৪ মিনিট পর নেইমারের ক্রস থেকে জোরালো শটে বার্সার জয়ের ব্যবধান দ্বিগুণ করেন র্যাকিতিচ।

দুই গোল ব্যবধানে পিছিয়ে পড়ার ধাক্কা কাটিয়ে উঠতে বেশি সময় নেয়নি রিয়াল। ১৬ মিনিটে রিয়ালের হারের ব্যবধান কমান মাতেও কোভাচিচ। এর ২০ মিনিট পর আসেনসিওর গোলে সমতায় ফেরে রিয়াল। নামে প্রস্তুতি ম্যাচ হলেও বিরতির পরও তারকা খেলোয়াড়দের মাঠে নামিয়েছেন দুই দলের কোচ। ৫০ মিনিটে নেইমারের ফ্রি-কিক থেকে গোল করে বার্সাকে এগিয়ে দেন জেরার্ড পিকে। শেষ পর্যন্ত পিকের গোলেই জয় নিশ্চিত হয় বার্সার। যদিও তার আগে বেশ কয়েকটি গোলের সুযোগ পেয়েছে দুই দল।

বার্সার নতুন কোচ হিসেবে চ্যাম্পিয়ন্স কাপের সব ম্যাচ জিতে দুর্দান্ত শুরু করলেন ভ্যালভের্দে। অন্যদিকে জয় ছাড়াই চ্যাম্পিয়ন্স কাপ শেষ করল রিয়াল। তবে দলটির কোচ জিদান এ নিয়ে মোটেও চিন্তিত নন। তার ভাবনায় এখন আগামী ৮ আগস্ট উয়েফা সুপার কাটে ম্যানইউর বিপক্ষে ম্যাচ। বার্সার কাছে হারের পর জিদান বলেন, ‘এটা প্রাক-মৌসুম টুর্নামেন্ট হলেও যে লক্ষ্য ছিল, তা অর্জিত হয়নি। যদিও এতে কোনো কিছু যায় আসে না। আমাদের এখন ৮ আগস্টের প্রস্তুতি নিতে হবে।’ এএফপি

Blogkori

Phasellus facilisis convallis metus, ut imperdiet augue auctor nec. Duis at velit id augue lobortis porta. Sed varius, enim accumsan aliquam tincidunt, tortor urna vulputate quam, eget finibus urna est in augue.

Post a Comment